‘মনে রেখ কেবল একজন ছিল, ভালবাসত শুধু তোমাদের’

‘শেষ বেলায় ভুলে যেও অভিমান।
মনে রেখ কেবল একজন ছিল, ভালবাসত শুধু তোমাদের….’

মাত্র দুটি বাক্য। এই দুই বাক্যেই লুকিয়ে রয়েছে যেন এক মহাসাগর আবেগ, ভালোবাসা আর অব্যক্ত অনুভুতি। না এগুলো জেমসের গাওয়া গানের কোনো লাইন নয়। এই দুটি বাক্য কিছুক্ষণ আগে ফেসবুকে নিজের অফিসিয়াল পেজে পোস্ট করেছেন, সদ্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অধিনায়কত্ব থেকে অবসর নেয়া, বাংলাদেশের এখনও পর্যন্ত সর্বকালের সেরা অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

শুক্রবারই ছিল তার অধিনায়ক হিসেবে শেষ ম্যাচ। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শেষবারের মত তিনি টস করতে নেমেছিলেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক শন উইলিয়ামসের সঙ্গে। শেষ ম্যাচে টস হারলেও ম্যাচটা তাকে উপহার দিয়েছেন লিটন দাস, তামিম ইকবাল এবং সাইফউদ্দিন।

Mashrafee

বিশাল জয়ে মাশরাফি অধিনায়ক ক্যারিয়ারে বাংলাদেশের প্রথম অধিনায়ক হিসেবে জিতলেন ৫০টি ওয়ানডে। ম্যাচ শেষে সতীর্থদের কাছ থেকে পেয়েছেন আবেগাপ্লুত বিদায়ী সংবর্ধনা। তামিম ইকবাল তাকে কাঁধে নিয়ে প্রদক্ষিণ করেছেন পুরো মাঠ। লিটন দাস চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি প্রিয় নেতার বিদায়ে। আতহার আলি খানরা স্যালুট জানিয়েছেন অধিনায়ককে।

মাশরাফিও সেই আবেগ ধরে রাখতে পারেননি। মাঠের মধ্যেই নিজের সতীর্থদের সঙ্গে আবেগ ভাগাভাগি করে নিয়েছেন। কিন্তু সতীর্থদের জন্য হৃদয়ে রক্তক্ষরণ তো আর সহজে বন্ধ করার মত নয়। সে সঙ্গে যখন দেখলেন পুরো দেশের মানুষ সোশ্যাল মিডিয়া ভাসিয়ে দিচ্ছেন মাশরাফিকে বিদায়ী সম্ভাষণে, তখন তিনি কি বোর্ডে হাত রাখলেন। মানুষকে নিজের অনুভূতিটা জানাতে সহযোগিতা নিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ফেসবুকে নিজের অফিসিয়াল পেজে লিখে দিলেন, ‘শেষ বেলায় ভুলে যেও অভিমান। মনে রেখ কেবল একজন ছিল, ভালবাসত শুধু তোমাদের….।’

সত্যিই মাশরাফি তার সতীর্থদের ভালোবাসতেন। নিজের একান্ত আপনজনের মত করে স্নেহ এবং শাসন করতেন। এ কারণেই তো দীর্ঘ অর্ধযুগ তিনি একই ছাতার নিচে নিয়ে আসতে পেরেছিলেন পুরো দলকে। সেই ছাতা শুক্রবার সরে গেলো বাংলাদেশ দলের মাথার ওপর থেকে। বিষয়টা নিজেও উপলব্ধি করতে পেরেছেন। সতীর্থরা যখন বুঝলেন, মাশরাফির এই মায়াভরা হাত আর কারও মাথায় পড়বে না, আর কারো কাঁধে রাখা হবে না- তখন সবাই ভারাক্রান্ত।

মাশরাফি সেটা বুঝে নিয়েই মাত্র দুই লাইনের একটি পোস্টে বলে দিলেন অনেক না বলা কথা। আকুতি জানালেন, কারো কোনো অভিমান-অনুযোগ থাকলে যেন সব ভুলে যায় তারা।

ad
ad

এক্সক্লুসিভ সর্বশেষ

ad
ad

এক্সক্লুসিভ সর্বাধিক পঠিত

আগের সংবাদ