Home / slider / দুর্গাপুর খাদ্যগুদামের গেট বিক্রি করল আ. লীগ নেতা

দুর্গাপুর খাদ্যগুদামের গেট বিক্রি করল আ. লীগ নেতা

Loading...

রাজশাহী দুর্গাপুর উপজেলা খাদ্যগুদামের পুরনো লোহার প্রধান গেট বিক্রি করে দিল আওয়ামী লীগ নেতা রুস্তম আলী। পরে খাদ্যগুদামের কর্মকর্তারা স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় ১৯০ কেজি ওজনের সেই গেটি উদ্ধার করে। কালের কণ্ঠ

এ ঘটনায় দুর্গাপুর উপজেলায় ব্যাপক সমালোচনা দেখা দিয়েছে। ওই আওয়ামী লীগ নেতা উপজেলার ধরমপুর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।
তবে গেটটি বিক্রির পেছনে খাদ্য অধিদপ্তরের লোকজন জড়িত আছে বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করছে।

জানা গেছে, উপজেলা খাদ্য গুদামের প্রধান গেট নতুন করে স্থাপন করা হয়। এর পরে পুরনো গেটটি গুদাম চত্বরে সংরক্ষণ করে রাখা হয়। গত শনিবার আওয়ামী লীগের নেতা রুস্তম আলী তার কর্মীদের দিয়ে সেই গেটটি গুদাম চত্বর থেকে গাড়ি যোগে তুলে নিয়ে থানা মোড়ে অবস্থিত সেলিম নামের এক ভাংড়ি ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দেয়। এর পরে বিষয়টি নিয়ে সবার মাঝে সমালোচনা দেখা দেয়।

পরে উপজেলা খাদ্যগুদামের ইনচার্জ (ওসিএলএসডি) আফরোজা বেগম গতকাল সোমবার দুপুরে সেই ভাংড়ি দোকান থেকে ওই গেটটি উদ্ধার করেন। তবে ১৯০ কেজি ওজনের ওই গেটটি খাদ্য গুদাম হতে কিভাবে বাহিরে গেল তা নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে দেখা দিয়ে নানা প্রতিক্রিয়া। অনেকে মনে করছেন গেটটি বিক্রির পেছনে ওই গুদাম কর্মকর্তার যোগসাজ রয়েছে।

আওয়ামী লীগ নেতা রুস্তম আলী জানান, তাকে ফাঁসানোর জন্য একটি মহল তার নাম দিয়ে গেটটি বিক্রি করিয়েছে। তিনি এ বিষয়ে কিছুই জানেন না। এ বিষয়ে দুর্গাপুর খাদ্যগুদাম ইনচার্জ (ওসিএলএসডি) আফরোজা বেগম জানান, গেটটি একটি ভাংড়ির দোকান হতে উদ্ধার করা হয়েছে। তবে কিভাবে সেখানে গেছে আমার জানা নেই।

এ বিষয়ে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা ছালাম বিশ্বাস বলেন, পুরনো লোহার গেট সম্পর্কে তার দপ্তরের খাদ্যগুদামের ইনচার্জ জানেন। তিনি গেট বিষয়ে কিছুই জানেন না, তবে সেই গেটটি উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*