Home / slider /
ভি নাগ পালের পরামর্শ
তরল নয় ছিটাতে হবে দানাদার ‘কেমোফাস’

ভি নাগ পালের পরামর্শ
তরল নয় ছিটাতে হবে দানাদার ‘কেমোফাস’

Loading...

সারা দেশে উদ্বেগজনক হারে ছড়িয়ে পড়া ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আমন্ত্রণে দেশে এসেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নয়া দিল্লির আঞ্চলিক অফিসের জ্যেষ্ঠ কীটতত্ত্ববিদ ডা. ভি নাগ পাল। তিনি এসেছেন মূলত এডিস মশা নিধন ও ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে পরামর্শ দিতে। এর আগে তিনি ভারত, শ্রীলঙ্কা, নেপাল ও মালদ্বীপে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছেন।

এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ দেশ রূপান্তরকে বলেন, তিনি মূলত পরামর্শ দিচ্ছেন কীভাবে আমরা ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ করতে পারি। এরমধ্যেই তিনি আমাদের সঙ্গে কয়েক দফা বৈঠক করেছেন। পরামর্শ দিয়েছেন। আমরা সে অনুযায়ী কাজ শুরু করছি।

এই আন্তর্জাতিক মানের কীটতত্ত্ববিদের পরামর্শ তুলে ধরে মহাপরিচালক বলেন, ভি নাগ পাল আমাদের বলেছেন, এনোফিলিস মশা সাধারণত একজনকে কামড়ানোর দুই দিনের মধ্যে আর নতুন কাউকে কামড়ায় না। আর এডিস মশা পেট ভরার জন্য গড়ে পাঁচজনকে কামড়ায়।

এডিস মশা ১০০টির মতো ডিম পাড়ে। ডিমের মধ্যেও ডেঙ্গুর ভাইরাস যেতে পারে। সেই ভাইরাস পরে ডিম থেকে লার্ভা ও লার্ভা থেকে যে বাচ্চা হয়, সে বাচ্চার মধ্যে যেতে পারে।

এডিস মশার আবাসস্থল সম্পর্কে ভি নাগ পাল বলেছেন, এই মশা বেশি থাকে পুলিশ যেসব যানবাহন আটক করে স্তূপ করে রাখে সেখানে। অফিস বাসায় যেসব স্থানে ভাঙাচোরা আসবাবপত্র জমা করে রাখা হয়, সেখানে।

এডিস মশা মারার ব্যাপারে এই কীটতত্ত্ববিদ পরামর্শ দেন, বাড়ির ভেতর দরজা জানালা বন্ধ করে মশার ওষুধ স্প্রে করতে হবে। খাট, চেয়ার, টেবিল ও বিছানার নিচে ওষুধ ছিটাতে হবে। যেখানে বেশি মানুষ থাকে, সেখানে এডিস মশা বেশি থাকে। সেখানে বেশি কামড়ায়। ড্রেনের মধ্যে ওষুধ ছিটালো মশা মরবে না। ওখানে মশা থাকে না।

ভি নাগ পাল বলেছেন, বাংলাদেশে সিটি করপোরেশন ‘কেমোফাস’ নামে যে তরল ওষুধ মশা মারতে ছিটায় তার মেয়াদ এক সপ্তাহের কম থাকে। কিন্তু ‘কেমোফাস’ ওষুধের দানা আছে, ওই দানা ছিটালে ২১ দিন পর্যন্ত কাজ করে। ফলে মশার ডিম থেকে লার্ভা হতে পারে না।

মহাপরিচালক বলেন, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে ভি নাগ পালের ৪০ বছরের অভিজ্ঞতা। তার ৭ আগস্ট পর্যন্ত দেশে থাকার কথা।

(Visited 1 times, 1 visits today)
Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

eleven + thirteen =