Templates by BIGtheme NET
Home / slider / বিমান বহনে সক্ষম তৃতীয় রণতরী তৈরি করছে চীন, চিন্তা বাড়ছে ভারতের

বিমান বহনে সক্ষম তৃতীয় রণতরী তৈরি করছে চীন, চিন্তা বাড়ছে ভারতের

Loading...

ফের বিমান বহনে সক্ষম রণতরী তৈরি করছে চীন। এই ধরনের দু’টি যুদ্ধজাহাজ থাকলেও তৃতীয়টি আরো বড় শক্তিশালী হবে বলে সোমবার চীনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এই যুদ্ধজাহাজটি তৈরি হলে চীনের নৌবাহিনী আরো শক্তিশালী হয়ে উঠবে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

ভারতীয় নৌবাহিনী সূত্রে খবর, ১৯৬১ সাল থেকে ভারতের হাতে বিমান বহনে সক্ষম যুদ্ধজাহাজ থাকলেও এই মুহূর্তে এই ধরনের একটি রণতরীই রয়েছে। আইএনএস বিক্রমাদিত্য। অনুমান, ২০২০ সালে পরীক্ষামূলকভাবে পানিতে নামানো হবে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি আইএনএস বিক্রান্ত।

সামরিক ক্ষেত্রে বরাবর শক্তিশালী হলেও যুদ্ধবিমান, হেলিকপ্টার বহনে সক্ষম রণতরী তৈরির ক্ষেত্রে অন্যান্য দেশের তুলনায় কিছুটা পিছিয়ে ছিল চীন। ২০১২ সালে ইউক্রেনের কাছ থেকে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নে তৈরি যুদ্ধজাহাজ লিয়াওনিং কেনে চীন। যুদ্ধজাহাজটি পরীক্ষামূলকভাবে পানিতে নামানো হলেও মূল লক্ষ্য ছিল এই সংক্রান্ত যাবতীয় প্রযুক্তি উদ্ঘাটন করা। পরবর্তী সময়ে নিজেদের দেশেই বিমান বহনে সক্ষম আরো একটি যুদ্ধজাহাজ তৈরি করে চীন।

গত বছর তা পরীক্ষা করে দেখার পর ২০২০ সালের মধ্যে রণতরীটি নৌবাহিনীর ব্যবহারযোগ্য হবে বলে জানানো হয়। এরপরেই সোমবার চীনের তরফে বিমান বহনে সক্ষম তৃতীয় যুদ্ধজাহাজ তৈরির কথা জানানো হয়। চীনের সরকারি সংবাদসংস্থার তরফে এনিয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো না হয়নি। বলা হয়েছে, নির্ধারিত সময়সূচি মেনেই নতুন প্রজন্মের এই রণতরী তৈরির কাজ চলছে। আগের দু’টি যুদ্ধজাহাজের তুলনায় নির্মীয়মাণ এই রণতরীটি আরো বড় এবং শক্তিশালী হবে বলেও জানা গেছে। যদিও এই প্রসঙ্গে চীনের সরকারি জাহাজ নির্মাণকারী সংস্থার কর্মকর্তারা কোনো মন্তব্য করতে চাননি।

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

nineteen + twenty =