Templates by BIGtheme NET
Home / slider / পুরুষের বন্ধ্যত্বে পোশাকের প্রভাব

পুরুষের বন্ধ্যত্বে পোশাকের প্রভাব

Loading...

পুরুষের বন্ধ্যত্ব দিন দিন বাড়ছেই। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের একদল গবেষক দাবি করেছেন, এর সঙ্গে পোশাকের সম্পর্ক রয়েছে। তাঁরা বলছেন, শরীরের নিচের অংশে, বিশেষ করে ঢিলেঢালা অন্তর্বাস পরলে পুরুষের বীর্য বা শুক্রাণুর ঘনত্ব বাড়ে। আর আঁটসাঁট অন্তর্বাস পরলে ঘটতে পারে উল্টো ঘটনা।

গবেষণাটি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ‘হার্ভার্ড টিএইচ চ্যান স্কুল অব পাবলিক হেলথ’-এর একদল গবেষক। তাঁদের গবেষণা প্রতিবেদনটি সম্প্রতি ছাপা হয় ‘হিউম্যান রিপ্রোডাকশন’ সাময়িকীতে।

গবেষণাটি করা হয় ৬৫৬ জন পুরুষের ওপর; যাদের সবাই ২০০০ থেকে ২০১৭ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ‘ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হসপিটাল’-এ বন্ধ্যত্বজনিত সমস্যার চিকিৎসা নিতে গিয়েছিল। গবেষণায় উঠে আসে, যারা প্যান্টের নিচে ঢিলেঢালা অন্তর্বাস পরে, তাদের বীর্যের ঘনত্ব আঁটসাঁট অন্তর্বাস পরা পুরুষদের চেয়ে গড়ে ২৫ শতাংশ বেশি হয়ে থাকে।

গবেষকদের ধারণা, ঢিলেঢালা পোশাক পরার কারণে অণ্ডকোষের আশপাশে তাপমাত্রা অপেক্ষাকৃত কম থাকে। এটি বীর্যের ঘনত্ব বেশি হওয়ার একটি কারণ হতে পারে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই ছোট একটি অভ্যাস পুরুষের উর্বরতা বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। কারণ, তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে গেলে বীর্য উৎপাদন স্বাভাবিকের চেয়ে কম হয়।

এ গবেষণায় পুরুষদের বয়স, দেহের ওজন ও উচ্চতার সামঞ্জস্য, ধূমপান, মাদক গ্রহণের প্রবণতাসহ বিভিন্ন বিষয় বিবেচনায় নেন গবেষকরা। তবে বীর্যের ঘনত্বের তারতম্যের প্রধান কারণ অন্তর্বাস আঁটসাঁট না ঢিলেঢালা, সেটিকেই চিহ্নিত করছেন তাঁরা।

গবেষণায় আরো উঠে আসে, মস্তিষ্ক থেকে নির্গত হওয়া এক ধরনের হরমোনের (ফলিকল স্টিমুলেটিং হরমোন বা বীর্যকোষ উদ্দীপক হরমোন) কারণে বীর্য উৎপাদন হয়ে থাকে। অণ্ডকোষের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার পর বীর্য উৎপাদনের হার যখন কমে যেতে থাকে, তখন মস্তিষ্ক এই হরমোন নির্গমন শুরু করে। গবষেণায় দেখা যায়, যারা ঢিলঢালা অন্তর্বাস পরে থাকে, তাদের দেহে এই হরমোনের উপস্থিতি আঁটসাঁট অন্তর্বাস পরা পুরুষদের চেয়ে ১৪ শতাংশ কম। সূত্র : বিবিসি, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

1 + seven =