ঘুরে আসুন পদ্মা রিসোর্ট

ভ্রমণ ডেস্ক: যান্ত্রিক জীবন থেকে কয়েকটি দিন দূরে চলে গেলে কেমন হয়? ছুটিটা কাজে লাগিয়ে ঘুরে আসতে পারেন কোনো রিসোর্টে। অল্প সময়ের ছুটিতেও দুদণ্ড প্রকৃতির সান্নিধ্য পেলে কেমন হয়! নিশ্চয়ই মন্দ হয় না।

রাজধানীর আশপাশে প্রত্যন্ত এলাকায় গ্রামীণ পরিবেশে গড়ে উঠেছে অর্ধশতাধিক বেসরকারি রিসোর্ট। প্রকৃতিপ্রেমী ও ভ্রমণপিপাসুদের আনাগোনা থাকে সবসময়। আর হাতের কাছে এমন সুন্দর, নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখতে রাজধানীসহ দেশের সব শ্রেণিপেশার মানুষের কাছে এখন জনপ্রিয় রিসোর্টগুলো। ভিড় থাকায় এখনই বুকিং দিতে পারেন আপনার পছন্দের রিসোর্টে।

ছুটির দিন কিংবা ঈদের বন্ধ ছাড়া বুকিং না করে গেলেও সাধারণত কটেজ খালি পাওয়া যায়। বুকিংয়ের জন্য পদ্মা রিসোর্টের নিজস্ব ওয়েবসাইটে সব তথ্য দেয়া আছে।

রিসোর্ট যদি শুধু দিনের বেলা ভাড়া করতে চান, তাহলে সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত থাকতে পারবেন এবং সেক্ষেত্রে ভাড়া লাগবে ২৩০০ টাকা। আর যদি দিনসহ রাতও কাটাতে চান, তাহলে ভাড়া লাগবে ৩৪০০ টাকা। মোট ১৬টি কটেজ। এই কটেজগুলোই মূল আকর্ষণের জায়গা।

নদীর পাড় ঘেঁষে গড়ে ওঠা কটেজগুলোতে বেশ আরামদায়ক এবং নিরিবিলি সময় কাটাতে পারবেন। কটেজগুলোর নামকরণও করা হয়েছে বেশ সুন্দরভাবে। ১২টি কটেজের নাম রাখা হয়েছে বাংলা বছরের ১২টি মাসের নামানুসারে। আর বাকি চারটির নাম নেওয়া হয়েছে চারটি ঋতু থেকে।

যদি ভরা বর্ষায় আসেন তাহলে কটেজগুলোর সামনে পানি টলটল করবে। এর ওপর কাঠের তৈরি রাস্তা দিয়ে হাঁটাচলা করতে হয়। মনে হয় কটেজগুলো যেন ভেসে আছে পানিতে।

ad
ad

আরও সর্বশেষ

ad
ad

আরও সর্বাধিক পঠিত

আগের সংবাদ
পরের সংবাদ