ঢাবির পূর্বের ভিসি প্যানেল অবৈধ : হাইকোর্ট

Loading...

হাইকোর্ট ছয় মাসের সময় বেঁধে দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ণাঙ্গ সিনেট গঠনের মাধ্যমে ভিসি প্যানেল মনোনয়নের ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য।

মঙ্গলবার হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ এ নির্দেশনা দেন।

নতুন ভিসি প্যানেল গঠনের নির্দেশনা পাশাপাশি হাইকোর্ট বেঞ্চ আগের মনোনীত তিন সদস্যবিশিষ্ট ভিসি প্যানেলকেও অবৈধ ঘোষণা করেন।

এর আগে তিন সদস্যের ভিসি প্যানেল মনোনয়নের জন্য চলতি বছরের ২৯ জুলাই ঢাবির বিশেষ সিনেট সভা আহ্বান করা হয়।

পরে ১৬ জুলাই ঢাবি রেজিস্ট্রারের দেয়া এই চিঠির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে শিক্ষক ও রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটসহ ১৫ জন হাইকোর্টে রিট করেন।

তারা রিটে যুক্তি তুলে ধরে বলেন, রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটের অনেক প্রতিনিধির পদ খালি। সিনেটের প্রতিনিধি হিসেবে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটদের পদ পূরণ না করে সিনেট সভা ডেকে উপাচার্য প্যানেল মনোনয়ন করা ঠিক নয়।

২৪ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটসহ ১৫ জনের করা ওই রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট বেঞ্চ রুল জারি করেন এবং সিনেট সভার ওপর স্থগিতাদেশ দেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আদেশ ১৯৭৩ সালের ২০(১) ধারা অনুযায়ী সিনেট গঠন না করে ২৯ জুলাই ডাকা সভাটি কেন আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত হবে না, রুলে তা জানতে চাওয়া হয়।

হাইকোর্টের এ আদেশের বিরুদ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আপিল করেন। এরপর ২৬ জুলাই হাইকোর্টের দেয়া স্থগিতাদেশ ৩০ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত করেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। ছাত্র-শিক্ষকদের আপত্তি ও অসন্তোষ সত্ত্বেও এ স্থগিতাদেশের সুবাদে কোনো প্রকার আইনি বাধা ছাড়াই ২৯ জুলাই সিনেটের বিশেষ সভাটি যথারীতি অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় তিন সদস্যের ভিসি-প্যানেল মনোনীত করা হয়।

Loading...

সুত্র: যুগান্তর

ভিডিওটি দেখতে নিচে ক্লিক করুন

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*