স্বপ্নের পতাকা নিয়ে থাইল্যান্ডে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল

স্বপ্নের পতাকা নিয়ে এশিয়ান অনুর্ধ-১৬ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের চূড়ান্ত পর্বে অংশ নিতে থাইল্যান্ড গেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ-১৬ নারী ফুটবল দল। পুরুষ ফুটবলে যখন কেবলই পতনের খবর তখন বাংলাদেশের নারী ফুটবলাররা স্বপ্নের পতাকা উড়িয়ে চলেছেন। এশিয়ার কোন চ্যাম্পিয়নশিপে চুড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জনের এটিই বাংলাদেশের প্রথম কৃতিত্ব।

থাইল্যান্ডের চোনবুড়িতে ১০ সেপ্টেম্বর থেকে ২৩ সেপ্টম্বর এ আসর বসছে। বাংলাদেশের গ্রুপে আছে তিন বিশ্ব জায়ান্ট উত্তর কোরিয়া, জাপান ও অস্ট্রেলিয়া। বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ সোমবার ১১ সেপ্টেম্বর বর্তমান ও দুইবারের অনূর্ধ-১৭ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে। সাবেক অনূর্ধ-১৭ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ও এশিয়ান অনূর্ধ-১৬ এর বর্তমান রানার্সআপ জাপানের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ ১৪ সেপ্টেম্বর। গ্রুপ-বি তে বাংলাদেশের শেষ ম্যাচ ১৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব র‍্যাংকিংয়ের ষষ্ঠ ও এশিয়া র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষদল অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে। উত্তর কোরিয়া, জাপান ও অস্ট্রেলিয়ার মতো বিশ্ব পরাশক্তিদের পেছনে ফেলে সেমিফাইনালে খেলা বাংলাদেশের জন্য হবে এক অসাধ্য সাধন। কিন্তু কৃষ্ণারা ঢাকা ছাড়ার আগে সামর্থ্য অনুয়ায়ী লড়াইয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে গেছেন। তারা দারুণ আত্মবিশ্বাসী ভালো করার ব্যাপারে। এ আত্মবিশ্বাসের পেছনে আছে দীর্ঘ এক বছরের নিরবিচ্ছিন্ন প্রস্তুতি। বাংলাদেশের আর কোন দল কখনও এত দীর্ঘ সময়ের পরিকল্পিত প্রস্তুতি নিয়ে কোন প্রতিযোগিতায় এর আগে অংশ নেয়নি। ভীষণ কঠিন হলেও একটি সুপ্ত টার্গেট আছে বাংলাদেশের। এ প্রতিযোগিতার সেরা তিন দল আগামী বছর অনুর্ধ-১৭ বিশ্বকাপ ফুটবলের চুড়ান্তপর্বে খেলার টিকিট পাবে। বাংলাদেশ একটি টিকিট চায়। এ জন্য বাংলাদেশের এই নারী ফুটবলাররা নিরবিচ্ছিন্নভাবে এক বছর ক্যাম্পে ঘাম ঝড়িয়েছেন। অনুশীলন করেছেন। ছয় ছয়বার বিদেশে ক্যাম্প করেছেন। জাপান, চীন, দক্ষিণ কোরিয়ায় সিরিজ ফুটবল ম্যাচ খেলেছেন একাধিকবার।গতবছর বাছাই পর্বে ইরান, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও কিরঘিজস্তানের মতো শক্তিশালী দলকে টপকে গ্রুপ-সি থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে চূড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছেন কৃষ্ণারা। সে সাফল্যের আত্মবিশ্বাসে বলিয়ান বাংলাদেশের এই কিশোরীরা স্বপ্নের পতাকা নিয়ে যেতে চান আরো দূরে।

ad
ad

খেলা সর্বশেষ

ad
ad

খেলা সর্বাধিক পঠিত

আগের সংবাদ
পরের সংবাদ