Templates by BIGtheme NET
Home / slider / সেলফিতে প্রাণ গেল ডলফিনের

সেলফিতে প্রাণ গেল ডলফিনের

Loading...

পর্যটকদের চাপে শেষ পর্যন্ত মারা গেল একটি বাচ্চা ডলফিন। স্পেনের আলমিরা শহরের মাজাকার সৈকতে এই দুর্ঘটনাটি ঘটান পর্যটকরা। মাজাকার সৈকতটি স্পেনের ব্যস্ততম সমুদ্র সৈকত।

অত্যন্ত সতর্ক দৃষ্টি রাখা সত্ত্বেও পর্যটকরা সেলফি তুলে একটি ডলফিন শাবককে দীর্ঘ সময় আটকে রাখে। ততক্ষণে প্রাণ যায় ডলফির শাবকটির। সৈকত কর্তৃপক্ষ পর্যটকদের এমন নির্মম কা-ে শোক জানিয়েছেন একই সঙ্গে তারা নিন্দাও প্রকাশ করেছেন।

খবর পেয়ে সমুদ্র প্রাণিরক্ষা কর্তৃপক্ষ ১৫ মিনেটের মধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌছায় এবং উদ্ধার করে ডলফিন শাবকটিকে। তবে ডলফিন শাবকটি ততক্ষণে আর নেই।

ইকুনেক নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন তাদের ওয়েবসাইটে একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে। ডলফিনটির মৃত্যুর জন্য তারা তীব্র ক্ষোভ, নিন্দা ও ঘৃণা প্রকাশ করেন। একটি ছবি তারা পোস্ট করে। ছবির সঙ্গে অলাভজনক এই প্রতিষ্ঠানটি লিখেছে, মা ডলফিন থেকে অনেক সময় ধরে দূরে রাখার কারণে বাচ্চা ডলফিনটি প্রাণ হারায়।

এই নিন্দনীয় কাজের জন্য দায়ীদের পৃথিবীর সবচেয়ে বিচারশক্তিহীন প্রজাতি বলে আখ্যা দেন ইকুনেক। বিবৃতিতে সংগঠনটি আরো বলেছে, মাকে ছাড়া বাচ্চাটি ছটফট করছিল। নিজের স্বার্থের জন্য কিছু পর্যটক ডলফিন শাবকটি হত্যা করেছে।

একটি ছবির জন্য এতো সুন্দর একটি প্রজাতিকে হত্যা করা কোনো বিবেকবান মানুষের কাজ হতে পারে না। স্বেচ্ছাসেবী এই সংগঠনটি সামুদ্রিক প্রাণি হত্যার জন্য শাস্তিমূলক আইন জারির করার দাবি জানান।

এই ডলফিন সমুদ্র সৈকতে শত শত মানুষকে আনন্দ দেয়। স্পেনের আলমিরা সমুদ্র সৈকতে চার প্রজাতির ডলফিন দেখা যায়। এই ডলফিনগুলো সৈকতে বেড়াতে আসা পর্যটকদের আনন্দ দেয়। তাদের দেখতে প্রকৃতি প্রেমীরা সৈকতে ভিড় জমায়। অথচ কিছু বিবেকহীন মানুষ তাদের প্রকৃতি থেকে দূরে সরিয়ে রাখে।

সূত্র: দ্য ইনডিপেনডেন্ট

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

8 − 6 =