Templates by BIGtheme NET
Home / slider / বিএনপি ও ওয়ান ইলেভেনের কুশিলবরা ঐক্যবদ্ধ ষড়যন্ত্র করছে: কাদের

বিএনপি ও ওয়ান ইলেভেনের কুশিলবরা ঐক্যবদ্ধ ষড়যন্ত্র করছে: কাদের

Loading...

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি ও ওয়ান ইলেভেনের কুশিলবরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। দেশে  যখন শান্তিময় পরিস্থিতি বিরাজ করছে তখন তারা রাজনৈতিক অঙ্গনে নেমে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অশুভ খেলায় মেতে উঠেছে। নতুন কোনও ষড়যন্ত্রের জাল বোনা যায় কিনা সেই গোপন চক্রান্তে তারা লিপ্ত।
মঙ্গলবার ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবেদ সম্মেলনে তিনি এ সব কথা বলেন। গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের করা একটি মন্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘গুন্ডাতন্ত্র কাকে বলে তা সবিনয়ে কামাল হোসেনকে জিজ্ঞাসা করতে চাই? চোখ উপড়ে ফেললো আমাদের ছেলেকে আর ভিন্ন উদ্দেশ্যে তাকে হাইজ্যাক করে উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে চোখ উপড়ে ফেলার অভিযোগ দেওয়া হলো। আক্রান্ত হলাম আমরা, অথচ দেশে-বিদেশে সুপরিকল্পিতভাবে ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতে আমাদের আক্রমণকারী হিসেবে চিহ্নিত করা হলো।’
তিনি বলেন, আমাদের আহত কর্মীকে হাইজ্যাক করা হয়েছে। তা গণমাধ্যমেও দেখলাম, এ সংবাদ শুধু দেশে নয়, কিছু কিছু আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সংস্থাও করছে। আজকে দেশের বাইরেও অপপ্রচারে লিপ্ত। তিনি আরও বলেন, সব দোষ আওয়ামী লীগের, আমাদের ছাত্রলীগের। ছাত্রলীগের নতুন কমিটি হয়েছে। এখনও তারা ভালো করে গুছিয়ে উঠতে পারেনি। এ এলাকায় ছাত্রলীগের (ধানমন্ডি) কোনো কমিটি ছিল না। যারা আহত হয়েছে তাদের বেশিরভাগই সাবেক ছাত্রনেতা, বিভিন্ন উপ-কমিটির সদস্যরা। তাদের মধ্যে ৪৬ জন আহত হয়েছে।
ওবায়দুল কাদের বলেন, কানাডার আদালতে প্রমাণিত সন্ত্রাসী দল বিএনপি তাদের চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের জন্য যে কলঙ্ক অর্জন করেছিল তা আজকে চাপিয়ে দিতে চেয়েছে আওয়ামী লীগের ওপর, আমাদের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ওপর। আমরা এ ঘৃণ্য অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা জানাই। তিনি বলেন, যারা ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চান, তারা টার্গেট করেন সাংবাদিকদের। কারণ সাংবাদিকদের টার্গেট করে ফায়দা তোলার চেষ্টা এ দেশে অনেকবার হয়েছে। পৃথিবীর অনেক দেশেই এটা হয়। আমাদের দেশেও আমরা তা বারবার লক্ষ্য করেছি। ষড়যন্ত্রের শত বৈঠক হয়েছে, ব্যবস্থা নিলে কারও জেলের বাইরে থাকার কথা ছিল না
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জানি আমরা কোথায় কোন মিটিং হচ্ছে। দেশে হচ্ছে, বিদেশে হচ্ছে। প্রথম প্রহরে হচ্ছে, মধ্য প্রহরে হচ্ছে। শেষ প্রহরে হচ্ছে, রাতের অন্ধকারে। সরকার কিছু জানে না- সেটা ভাবলে বোকার স্বর্গে বাস করছেন। সবকিছুই আমরা জানি। সবকিছু সরকারের নলেজে আছে। কত ষড়যন্ত্র হয়েছে, কত বৈঠক হয়েছে। শত বৈঠক হয়েছে, ব্যবস্থা নিলে কারও জেলের বাইরে থাকার কথা ছিল না। কিন্তু আমরা ধৈর্য ধরছি।’
ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে যাচ্ছে: বিএনপির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ধরে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তারা সরকার হটানোর চক্রান্তের অংশ হিসেবে ঢাকা অচলের কর্মসূচি পালনের উদ্যোগ নিয়েছে। ঢাকা অচল করার মাধ্যমে তারা বাংলাদেশ অচল করতে চেয়েছে। কিন্তু তাদের অতীতের সব চক্রান্ত ব্যর্থ হয়েছে। এই অপপ্রায়সও ভেস্তে যাবে। ব্যর্থতায় পর্যবসিত হওয়ার পথে। এখানেও তাদের মিশন ফেল। আর কত ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত তারা করবে?’ তিনি বলেন, ‘যত অপবাদ আসুক, যতই ষড়যন্ত্র হোক, কাজ করে, দেশের উন্নয়ন করে তার জবাব দেবে আওয়ামী লীগ। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের সঙ্গে যতটা সম্ভব সহনশীল হবো। কিন্তু ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে যাচ্ছে।’
ইত্তেফাক
Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

three × five =