Templates by BIGtheme NET
Home / slider / রাস্তায় প্রস্রাব করা ঠেকাতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ‘স্মার্ট’ সমাধান! (ভিডিও)

রাস্তায় প্রস্রাব করা ঠেকাতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের ‘স্মার্ট’ সমাধান! (ভিডিও)

Loading...

একটি উন্নয়নশীল দেশের রাজধানী হিসেবে ঢাকা রক্ষাণা-বেক্ষণের দায়িত্ব আমাদের সবার। যে শহর এতগুলো মানুষকে ধারণ করছে, তার পরিচ্ছন্নতার দায়ভার আমাদের সবার কাঁধেই ন্যস্ত। উন্নয়ন হচ্ছে, সৌন্দর্য বৃদ্ধি করা হচ্ছে। নানা সমস্যা আছে, এমনটা সব সময় থাকবেই। তবে ঢাকাবাসীদের একটা বদভ্যাস সত্যিকার অর্থেই দৃষ্টিকটু। তা হলো, রাস্তার যত্রযত্র প্রস্রাব করা।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম সংক্রান্ত একটি ডকুমেন্টরি-তে এ সমস্যা মোকাবেলার স্মার্ট সমাধানের কথাই বলা হয়েছে।

ঢাকার একটি গর্বের পরিচয় আছে, যা তাকে পবিত্র শহরের আমেজ দেয়। ঢাকা মসজিদের নগরী, বললেন বাংলাদেশর ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান।

এ শহরে আছে ১০ হাজারের বেশি মসজিদ। প্রতিটি মসজিদে পাবলিক টয়লেট সুবিধা রয়েছে। সেখানে যেকোনো মানুষ সহজেই তার জরুরি কাজটি সারতে পারেন। আরো আছে সিটি করপোরেশনের পাবলিক টয়লেট। মোবাইল টয়লেটের ব্যবস্থাও আছে। কিন্তু এসব সুবিধা কয়জনে নেন?

যেখানে লেখা থাকে ‘এখানে প্রস্রাব করা নিষেধ’, সেখানেও মানুষ মূত্র ত্যাগ করে। এ বিষয়টি বোধগম্য নয় বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী।

মুসলিমপ্রধান দেশ হিসেবে এখানকার অসংখ্য শিশু আরবি ভাষা শেখে। আরবি ভাষায় লেখা বই যত্ন ও সম্মানের সঙ্গে সংরক্ষণ করা হয়। এমনকি রাস্তায় আরবি ভাষায় লেখে কোনো বইয়ের ছেঁড়া পাতা পেলেও তাকে তুলে শ্রদ্ধা প্রদর্শন করা হয়।

ঢাকাতে যেখানে সেখানে পাবলিকের প্রস্রাব করার বদভ্যাস বন্ধ করা দরকার। দেয়ালে দেয়ালে বাংলায় ‘এখানে প্রস্রাব করবেন না’ কিংবা ‘প্রস্রাব করলে জরিমানা’ জাতীয় কোনো নির্দেশনা লিখে কোনো সুফলই আসে না। তাই আরবি ভাষার প্রতি মানুষের শ্রদ্ধবোধকে কাজে লাগানো হলো। আরবিতে লেখা হয়েছে ‘হুনা মামনু আত্তাবুল’ বা ‘এখানে প্রস্রাব করবেন না’। এখন কেউ রাস্তায় এ কাজ করতে বসতেই তার চোখে পড়ে আরবি ভাষায় কিছু লেখা রয়েছে। সেখানে প্রস্রাব করার আর সাহসও করে না কেউ। তবে যেখানে আরবিতে এমনটা লেখা রয়েছে, সেখানেই মসজিদ কতদূরে বা পাবলিক টয়লেট কতদূরে তার নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

ঢাকাকে দুর্গন্ধমুক্ত করতে এটা এক স্মার্ট সমাধান। এই কৌশল অবশ্য অনেক আগেই কাজে লাগানো হয়েছে। এর আগে যত্রতত্র প্রস্রাব করা বন্ধ করতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে রাজধানী ঢাকার দেয়ালে আরবি লেখাকে ইসলামের সঙ্গে উপহাস বলে মন্তব্য করেছিল ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

17 + nine =