Templates by BIGtheme NET
Home / Photos / মোবাইল ফোনে পরিচয়ে রাজবাড়ীতে দুই তরুণীকে ধর্ষণ

মোবাইল ফোনে পরিচয়ে রাজবাড়ীতে দুই তরুণীকে ধর্ষণ

Loading...

নিউজ ডেস্ক: মোবাইল ফোনের রং নম্বর থেকে পরিচয় হয় দুইজনের। কথিত প্রেমের এমন সম্পর্ক গড়ে তুলে বিয়ের আশ্বাস। এরপর পৃথক স্থানে দুটি ধষর্ণের ঘটনা ঘটে রাজবাড়ীতে। বিয়ের আশ্বাসে চট্টগ্রাম থেকে এক তরুণীকে (২০) রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার পাঁচপোটরা গ্রামে এনে এক বাড়িতে আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় মেয়েটি বৃহস্পতিবার সকালে বালিয়াকান্দি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ভুক্তভোগী মেয়েটি জানান, তাঁর বাড়ি চট্টগ্রাম জেলার একটি গ্রামে। তাঁর সঙ্গে মোবাইল ফোনের রং নম্বরে পরিচয় হয় ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার ঢুমাইন গ্রামের পারভেজের (৩০)। এই পরিচয়ের সূত্র ধরে তাঁকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ডেকে আনে পারভেজ। তিনি গত ১৬ এপ্রিল ফরিদপুরের কামারখালী সেতু এলাকায় বাস থেকে নামেন। এরপর তাঁকে পাঁচপোটরা গ্রামের শরৎ বিশ্বাসের ছেলে শ্যামল বিশ্বাসের বাড়িতে মোটরসাইকেলযোগে নিয়ে যাওয়া হয়।

ওই বাড়ির লোকজনের সহায়তায় তাঁকে ঘরের মধ্যে আটকে রেখে যৌন নির্যাতন করে কথিত প্রেমিক পারভেজ। বুধবার সন্ধ্যার আগে পারভেজ তাঁকে মোটরসাইকেলে করে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন টের পেয়ে যায়। এ ব্যাপারে পারভেজকে চ্যালেঞ্জ করে স্থানীয়রা। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে পারভেজ পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ সদস্যরা তরুণীকে উদ্ধার করেন। তরুণী বালিয়াকান্দি থানায় প্রতারণা ও ধর্ষণের অভিযোগে চারজনের নাম ও অজ্ঞাতনামা দুজনকে আসামি করে মামলা করেছেন।

বালিয়াকান্দি থানা পুলিশের এসআই হাসিনা বেগম জানান, অপরাধে সহায়তা করার অভিযোগে পাঁচপোটরা গ্রামের শ্যামল বিশ্বাসের স্ত্রী গীতা বিশ্বাসকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

এদিকে, রাজবাড়ীতে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অভিযোগে বৃহস্পতিবার সকালে মেয়েটি রাজবাড়ী থানায় মামলা করেছে। মামলায় রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বারমল্লিকা গ্রামের আকাউদ্দিনের ছেলে মহিউদ্দিন (২৫) ও চৌবাড়িয়া গ্রামের মৃত সামসু বিশ্বাসের ছেলে হান্নান বিশ্বাসকে আসামি করা হয়েছে।

মেয়েটি জানায়, এক বছর আগে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে মহিউদ্দিনের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। একপর্যায়ে তারা প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। মহিউদ্দিন তাকে বিয়ের আশ্বাস দেয় এবং তারা মাঝেমধ্যে বিভিন্ন স্থানে ঘুরতে যেত। গত মঙ্গলবার তার ভাইয়ের সন্তানসম্ভবা স্ত্রীকে দেখতে তার মা একটি ক্লিনিকে যায়। ওই দিন সন্ধ্যার দিকে মহিউদ্দিন তার সহযোগী হান্নানকে সঙ্গে নিয়ে তাদের বাড়িতে আসে। তার ওপর যৌন নির্যাতন করে।

রাজবাড়ী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল তায়াবুর জানান, আসামিদের ধরতে চেষ্টা চলছে। সেই সঙ্গে আদালতে মেয়েটির জবানবন্দি রেকর্ড করার পাশাপাশি রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে।

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

thirteen − 7 =