পাগলে কি না বলে ছাগলে কি না খায়, খালেদার বক্তব্য সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী

Loading...

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার পদ্মাসেতু নিয়ে মন্তব্যকে পাগলের প্রলাপ হিসেবে অভিহিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এ ধরনের পাগলের কথায় বেশি মনোযোগ না দেয়ায় ভাল। কারণ কোনো সুস্থ্য মানুষ এধরনের কথা বলতে পারে না।

বুধবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি (খালেদা জিয়া) বলেছেন জোড়াতালি দিয়ে পদ্মাসেতু নির্মাণ করা হচ্ছে। উনার দলের লোকজন যেন ওই সেতুতে না ওঠে তাও নিষেধ করেছেন। একটি সেতু তো জোড়া দিয়েই নির্মাণ হয়। এছাড়া হয় না। তিনি জোড়াতালি বলতে কি বোঝালেন সেটা আমার বোধগম্য না। তবে বাংলাদেশে তো একটা প্রচলিত কথা আছে,–পাগলে কি না কয়, ছাগলে কি না খায়।

সম্প্রতি খালেদা জিয়া এক অনুষ্ঠানে বলেন, পদ্মাসেতু জোড়াতালি দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে। সেই সেতুকে কাউকে না ওঠার জন্য বলেন তিনি। সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে বাপ্পি এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্য জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই পদ্মাসেতু আমরা প্রথমবার সরকার গঠনের সময় চিন্তা করেছিলাম। আমি সেই সময় জাপান সফরের করে তাদেরকে পদ্মাসেতু নির্মাণে সহযোগিতার কথা বলি। আমরা জাপান সরকারের কাছে পদ্মা ও রূপসা সেতু নির্মাণ করতে সহায়তা চেয়েছিলাম। সেই হিসেবে তারা সমীক্ষাও করেন। আর সমীক্ষার পর যে জায়গাটা তারা নির্বাচন করেন সেখানে আমি ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০০১ এ বিএনপি সরকার ক্ষমতার আসার পর সেই সেতুর নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়। ফলে সেই সেতু আর তখন নির্মাণ হয়নি। দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর আমরা পদ্মাসেতুর কাজ শুরু করি। শুরুতেই একটা হোচট খাই। যেখানে বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির অভিযোগ আনে। আমি এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছিলাম এরকম দুর্নীতি হয় নাই। সেটা আজকে প্রমাণিত। কানাডার আদালত বলে দিয়েছে কোনো দুর্নীতি হয় নাই। বিশ্বব্যাংক অর্থ প্রত্যাহার করে নেয়ার পর আমরা নিজস্ব অর্থায়নে এর কাজ শুরু করে দিয়েছি। এই সেতু নিয়ে বিএনপির নেত্রী বক্তব্য দিয়েছে। এটা নিয়ে আমি কি মন্তব্য করব?

তিনি বলেন, পদ্মাসেতুর সঙ্গে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের ভাগ্য জড়িত। এই কাজগুলো জনগনের স্বার্থে করা। এই সেতু হলে জিডিপি ১ শতাংশ বেড়ে যাবে। অথচ তিনি বলে দিলেন তার দলের কেউ যেন এই সেতুতে না উঠে। আমি জানি না বিএনপির নেতা নেত্রীরা যারা তার এই কথা শুনেছেন তারা সত্যিই পদ্মাসেতু হওয়ার পর উঠবেন কীনা । যদি তারা উঠে তাখন এলাকার লোকজন নজরদারি করতে পারবে সত্যিই তারা পদ্মাসেতুতে উঠল কীনা সেটা আমরা দেখব। আমার মনে হয় এটাকে পাগলের প্রলাপ হিসেবেই নিয়ে নেয়া ভাল ।

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*